অনুপ্রেরণার গল্প( অবহেলা) Bangla Motivational Story 2021

Bangla Advice story - WeBangali.com
Bangla Advice story - WeBangali.com



Table of Content (toc) 


শিক্ষনীয় ছোট গল্পঃ

আমাদের চারপাশে এমন কিছু মানুষ থাকে , যারা আমাদের ছোট করতে , অপমান করতে কিংবা আমাদের বর্তমান অবস্থার উপর মজা করতে দুবার ভাবে না । হতে পারে কেউ কোনো একটা কাজে অতটা অভিজ্ঞ না হতে । পারে কারো আর্থি অবস্থা  অতটা ভালো না হতে পারে। কারো জীবনে বিভিন্ন ক্ষেত্রে কয়েকবার ফেইল এসছে।  কিন্তু সেই মানুষগুলো সেই দুর্বলতার জায়গায় আঘাত করে তাদের ছোট করতেও কিছু পিছু টান হয়না।  তারা ভাবে না যে মানুষটাকে তারা বলছে, সে হয়তো অতটা ছোট থেকেই ট্যালেন্টেড নয়।  সেই মানুষটার এতে কত খারাপ লাগে,  কতবার অপমানে সবার থেকে আড়ালে গিয়ে সেই ছেলেটাকে বা মেয়েটাকে চোখের পানি ফেলতে হয় । 





তারা যখন ভাবে না তাদের কথা বাদ-ই দাও । চলো আমরা নিজেকে নিজেরাই এতটা স্ট্রং বানিয়ে ফেলি যাতে এরকম অপমান গুলো , এরকম মজা গুলো আমাদের কষ্ট আর না দিতে পারে । আজকে একটা এমন উদাহরণ দিয়ে তোমাদের এই ব্যাপারে মোটিভেট করার চেষ্টা করবো । যেটা তোমাদের সারাজীবন এরকম পরিস্থিতি গুলোতে নিজেকে স্ট্রং রাখতে সাহায্য করবে ।  তোমরা প্রত্যেক চেছ বা দাবা খেলার কথা নিশ্চয়ই জানো । দাবা খেলতে এক সাইডে প্লেয়ারের কাছে ষোলোটা গুটি থাকে । ষোলোটা গুটির মধ্যে বিভিন্ন ঘুঁটির পাওয়ার আলাদা,  তাদের দেখতে আলাদা, এবং তাদের এই দাবা খেলার মধ্যে ভূমিকা আলাদা আলাদা । 

কিন্তু এই ষোলটা গুটিকে মেনলি তিনটে ধাপে ভাগ করা যায় ।




এক নাম্বার ধাপ ,


 এই ষোলটা ঘুঁটির মধ্যে কিছু ঘুঁটি এমন থাকে , যাদের আমরা বর্ন ট্যালেন্টেড বলতে পারি , তাদের কাছে প্রথম থেকেই আলাদা আলাদা টাইপের ট্যালেন্ট থাকে । যেমন ড়ার কাছে আড়াই ঘর যাওয়ার ক্ষমতা থাকে, রানীর কাছে স্ট্রাইপড  আর কনাকুনির দুদিকেই যাওয়ার ক্ষমতা থাকে ।


 ঠিক আমাদের জীবনের মতো । আমাদের জীবনেও আমরা এরকম অনেক মানুষকে দেখি । যাদের কাছে প্রথম থেকেই কিছু না কিছু এমন ক্ষমতা থাকে । আবার সেটা অনেকের কাছে থাকে না । কারো কাছে হিরোর মতো সৌন্দর্য থাকে , কারো কাছে কোনো একটা ব্যাপারে প্রথম থেকেই প্রচুর ট্যালেন্ট থাকে , কেউ ছোট থেকেই অনেক চালাক চতুর বুদ্ধিমান হয় , আর ইত্যাদি ইত্যাদি ক্ষমতা থাকে । 




 দুই নম্বর ধাপ ,


এই ধাপে দাবা খেলাতে একটাই গুটি আছে যেটা হলো কিং বা রাজা । দাবা খেলাতে রাজা কিন্তু মাত্র এক ঘরেই যেতে পারে ।  তেমন কোনো অতিরিক্ত অর্ডিনারি ট্যালেন্ট কিন্তু তার কাছে থাকে না।  এমনকি কিছু কিছু সময় আসে, যে খুঁটির ভয়ে রাজা হওয়া সত্ত্বেও তাকে পিছু হটতে হয় । কিন্তু তা সত্ত্বেও রাজাকে ঘিরেই কিন্তু সমস্ত খেলাটা চলে । 

আমাদের চারপাশেও এরকম কিছু মানুষ থাকে যারা কোনো কাজেই তেমন ব্যাবহার যোগ্য নয় । কিন্তু তা সত্ত্বেও তাদের ছাড়া আমাদের জীবন চলে না 




তিন নম্বর ধাপ ,


তিন নম্বর ধাপে দাবা খেলায় পুরো হল্ফ গুটি রয়েছে । সবচেয়ে ছোট এবং সবচেয়ে কম ট্যালেন্টেড অন্যের কথা অনুযায়ী তারা একেকটা  সৈনিক । যারা প্রথমে দু-দান যেতে পারে , এবং তারপর মাত্র একদান একদান করে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে পারে।  এরা বর্ন ট্যালেন্টেড নয় এরা অতিরিক্ত কোনো ক্ষমতা নিয়ে জন্মায়নি । কিন্তু শুধুমাত্র এদের কাছেই এমন কিছু আছে যা অন্য কারোর কাছে নেই । একমাত্র ওই ছোট সৈন্য-রা এক পা পা করে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে যেতে যদি শেষ ঘরে পৌঁছে যায় । তাহলে সে যেটা হতে চায়, সেটাই হতে পারে । এটার মানে যারা দাবা খেলেছো তারা তো জানোই, কিন্তু যারা কখনো খেলোনি তাদের জন্য বলে দিই । 






একটা সৈন্য যদি এক প্যাক  পাক করে একদম শেষ ঘর অব্দি পৌঁছে যেতে পারে, তাহলে সৈন্য থেকে আগের কাটা যাওয়ার যে কোনো গুটিতে বদলে যেতে পারে । সে রানী হোক বা ঘোড়া হোক কিংবা অন্য যে কোনো ঘটি হোক হতে পারে । তাকে অনেক সংঘর্ষ করে অনেক ধৈর্য ধরে এক প্যাক পাক করে সামনের দিকে এগোতে হয় । হতে পারে তাকে সব সময় সবচেয়ে কম ট্যালেন্টেড গুটি বলা হয় । কিন্তু স্ট্রাগেল এর শেষে একমাত্র সেই পারে ,  নিজেকে সম্পূর্ণ পরিবর্তন করে ফেলতে । যেটা পুরো দাবার বোর্ডে অন্য কেউ পারে না । 






হয়তো  তুমিও জন্ম থেকে ট্যালেন্টেড না হতে পারো।  তোমার আজকে টাকা পয়সার অভাব রয়েছে , হতে পারে তোমার আজকের পরিস্থিতি নিয়ে অন্যরা মজা করছে , তোমাকে ছোট করছে , অপমান করছে ,  কিন্তু তুমি তাদের কোন কথাতেই কষ্ট পেয়ো না  বন্ধু ।  তুমি তোমার লক্ষ্যের দিকে এক  পা করে এগিয়ে যাও। দেখবে একদিন তোমার জীবনেও এমন দিন আসবে , যেদিন তোমার কঠোর পরিশ্রম এর পথটাও পেরিয়ে যাবে। আর তুমিও পৌঁছে যাবে তোমার স্বপ্নের জায়গায় ।  সেই ছোট্ট দাবা খেলার সৈনিকটার মত । আর যেদিন এটা ঘটবে সেদিন তুমিও নিজেকে সম্পূর্ণ নতুনরূপে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবে । 




তুমি আজ যেটা হওয়ার স্বপ্ন দেখো, তুমি সেটাই হতে পারবে। যারা আজ তোমাকে ছোট করছে , তাদের কাছে আজকে তোমার থেকে এক্সট্রা কিছু আছে বলে  তারা হাজার চেষ্টা করলেও কিন্তু তোমার সেই অর্জন করা জায়গায় পৌঁছাতে পারবে না । সে  সেটাই পাওয়ার যোগ্য , যে সব কিছু সহ্য করে , ধৈর্য ধরে নিজের কাজটা করে গেছে । আর এটাই অপমানের এর থেকে সব চেওবড় বদলা ? 


আমরা বাঙালী ব্লগের পক্ষ থেকে আমি অন্তর ছিলাম তোমার সাথে। এই আর্টিকেল টা যদি ভালো লাগলে  তাহলে অবশ্যই একটা কমেন্ট  ও শেয়ার করে দিও । আবারও কথা তোমার সাথে আরও একটি নতুন গল্পে। আজকের মতো এতটুকুই 

"ভালো থেকে আর ভালো রেখো "

Post a Comment

Previous Post Next Post